02 March, 2019

যে ৪ টি উপায়ে বাংলাদেশ থেকে আলিএক্সপ্রেসে পেমেন্ট করা যায়

১. পেওনিয়ার (Payoneer)
২. ইবিএল একোয়া মাস্টারকার্ড (Ebl equa)
৩. ওয়েব মানি (Web money)
৪. ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন (Western union)

aliexpress payment method bangladesh alialap.com

অনলাইনে লেনদেন, কেনাকাটা করার জন্য বহুল ব্যবহৃত একটি মাস্টারকার্ড হচ্ছে পেওনিয়ার ইন্টারন্যাশনাল মাস্টারকার্ড। বাংলাদেশের ফ্রীল্যান্সার, অনলাইন ব্যবসায়ীদের কাছেও এটি জনপ্রিয়। সুখবর হচ্ছে এই কার্ড দিয়ে আলিএক্সপ্রেস থেকেও অনলাইন শপিং করা যায়।

পেওনিয়ার ওয়েবসাইটে গিয়ে কার্ড অর্ডার করলে তারা আপনার ঠিকানায় পোস্ট অফিসের মাধ্যমে কার্ড পাঠিয়ে দিবে। এরপর কার্ডে ডলার লোড করে নিলে ইচ্ছে মত যখন খুশি পছন্দের পণ্যটি আলিএক্সপ্রেস থেকে কিনতে পারবেন।

বাংলাদেশী ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড প্রদত্ত ইবিএল একোয়া মাস্টারকার্ডটিও আলিএক্সপ্রেসে পেমেন্ট করার সহজ একটি উপায়। একোয়া কার্ডটি ডুয়াল কারেন্সী মাস্টারকার্ড, কাজেই এতে ডলার লোড করে আলিএক্সপ্রেসে পেমেন্ট করতে পারবেন। পারবেন অনলাইনে সব ধরণের লেনদেন করতে।

বিস্তারিত জানতে দেখুন:

পেপ্যাল, স্ক্রিল, পেওনিয়ারের মতই ওয়েব মানি হল রাশিয়া ভিত্তিক একটি অনলাইন পেমেন্ট প্রতিষ্ঠান। অনলাইনে খুব সহজে বাংলাদেশ থেকে ওয়েবমানি একাউন্ট তৈরী করা যায়। সুবিধা হল পেওনিয়ারের মত একাউন্ট খোলার পরে কার্ড আসার জন্য অপেক্ষা করতে হয় না। একাউন্ট খোলার পরপরই ঐ একাউন্ট এ ডলার লোড করে কেনাকাটা করা যায়।

বিদেশ থেকে টাকা পাঠানো বা পাওয়ার একটি মাধ্যম হল ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন। সাধারণত প্রবাসীরা বিদেশ থেকে দেশে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নে টাকা পাঠিয়ে থাকে। পেমেন্ট মেথড হিসেবে আলিএক্সপ্রেসে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নও সাপোর্ট করে।

- তবে এ পদ্ধতিতে পেমেন্ট প্রসেস হতে বেশি সময় লাগে।
- ২০ ডলার এর কম হলে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন দিয়ে পেমেন্ট করতে পারবেন না।

বিস্তারিত জানতে দেখুন:
How can I pay with Western Union? 

আলিএক্সপ্রেস নিয়ে www.alialap.com ওয়েবসাইটে কি ধরণের লেখা চান? নিচে কমেন্ট করুন। 


লেখাটি যদি আপনাদের কোন উপকারে এসে থাকে তাহলে অবশ্যই ফেসবুকে শেয়ার করুন।